Connect with us

বিশ্বজুড়ে মাঙ্কিপক্স এর বাড়বাড়ন্ত ! আতঙ্ক নয়, সতর্ক থাকুন

স্বাস্থ্য বার্তা

বিশ্বজুড়ে মাঙ্কিপক্স এর বাড়বাড়ন্ত ! আতঙ্ক নয়, সতর্ক থাকুন

মাঙ্কিপক্স একটি বিরল ভাইরাস সংক্রমণজনিত রোগ, যা পশু থেকে মানুষের মধ্যে সংক্রমিত হয়। সাধারণত এ রোগে শরীরে মৃদু উপসর্গ দেখা দেয় এবং আশার কথা হচ্ছে, অধিকাংশ মানুষ কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই সুস্থ হয়ে ওঠেন। এটি অনেকটা জল বসন্তের ভাইরাসের মতো। তবে এর ক্ষতিকারক প্রভাব কম। 

১৯৫৮ সালে প্রথম বানরের মধ্যে এ রোগ শনাক্ত হয়েছিল। ঘনিষ্ঠ সংস্পর্শ থেকে সাধারণত এই রোগ ছড়ায়। আফ্রিকার দেশগুলোতে এটি সিজনাল পক্স হিসেবে পরিচিত। আফ্রিকার বাইরে রোগটি ছড়িয়ে পড়ার ঘটনাটি নতুন করে উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

মাঙ্কিপক্স উপসর্গ কী?

এই রোগের প্রাথমিক উপসর্গ হচ্ছে জ্বর, মাথাব্যথা, হাড়ের জয়েন্ট, মাংসপেশিতে ব্যথা এবং দেহে অবসাদ।জ্বর শুরু হওয়ার পর দেহে গুটি দেখা দেয়। এসব গুটি শুরুতে দেখা দেয় মুখে। পরে তা ছড়িয়ে পড়ে হাত এবং পায়ের পাতাসহ দেহের সব জায়গায।এই গুটির জন্য রোগীর দেহে খুব চুলকানি হয়। পরে গুটি থেকে ক্ষত দেখা দেয়। গুটি বসন্তের মতোই রোগী সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে উঠলেও দেহে এসব ক্ষত চিহ্ন রয়ে যায়।সাধারণত সংক্রমণ একপর্যায়ে নিজে থেকেই কেটে যায়। ১৪ থেকে ২১ দিনের মধ্যে সেরে ওঠেন রোগী।

এ রোগের উপসর্গগুলো সাধারণত মৃদু আকারে প্রকাশ পায়, তবে ক্ষেত্রবিশেষে শিশু, গর্ভবতী বা যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম, তাদের জন্য এ রোগটি মারাত্মক আকার ধারণ করতে পারে। সাম্প্রতিক সময়ে, এ রোগে মৃত্যুহার ৩-৬%।

মাঙ্কিপক্স কীভাবে ছড়ায় ?

অন্যান্য ভাইরাসের মাঙ্কিপক্স এত সহজে এবং দ্রুত ছড়ায় না। যেভাবে Monkeypox Virus ছড়াতে পারে তা হচ্ছে-

1.আক্রান্ত ব্যক্তির ত্বক বা ফোস্কার সংস্পর্শে আসলে।

2.আক্রান্ত প্রাণীর সংস্পর্শে আসলে।

3.আক্রান্ত ব্যক্তির বিছানা ও কাপড়-চোপড়ের সংস্পর্শ থেকেও এটি ছড়াতে পারে।

4.আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি, কাশির মাধ্যমে এটি ছড়াতে পারে।

5.সঙ্গমের থেকেও এই রোগ ছড়িয়ে যায়।

মাঙ্কিপক্স এ সতর্কতা

ভারত এই বিষয়ে যথেষ্ট সতর্ক। একাধিক বিমানবন্দরে চরম সতর্কতা জারি করা হয়েছে। এবার বিদেশ থেকে রাজ্যে আসা ব্যক্তিদের উপর নজরদারি বাড়ানো হবে বলে স্বাস্থ্য দফতর সূত্রের খবর। আর সেই সময়ে কোনও ব্যক্তির শরীরে মাঙ্কিপক্সের উপসর্গ দেখা গেলে সঙ্গে সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে আইসোলেশনে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে।

এদিকে বিশ্বজুড়ে মাঙ্কিপক্সের বাড়বাড়ন্তের মাঝে আইসিএমআর ( ICMR ) সাফ জানিয়েছে মাঙ্কি পক্স সংক্রমণের ঘটনা রুখতে আইসিএমআর সর্বতোভাবে প্রস্তুত। এটা নতুন ভাইরাস নয়। আমাদের কিছু সাবধানতা মেনে চলতে হবে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে মাঙ্কিপক্স নিজে থেকেই ২১ দিনের মাথায় সেরে যায়। 

             তাই “অযথা আতঙ্ক নয়, সতর্ক থাকুন” ।

Dietician (9 yrs experience in Maternal & Child Health) Formerly attached with Bansgarh Rural hospital , Purulia ( 2013 Feb to 2022 Apr) Bhagirothi Neotia women and child care center, Park Street, Kolkata AMRI , Chakuri, kolkata

Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

More in স্বাস্থ্য বার্তা

Trending

ডায়েট

To Top

You cannot copy content of this page