Connect with us

YouTube Addiction থেকে নিজেকে কীভাবে মুক্ত করবেন

মানসিক স্বাস্থ্য

YouTube Addiction থেকে নিজেকে কীভাবে মুক্ত করবেন

আজকালকার দিনে ইউটিউবে ভিডিও তো আমরা সকলেই দেখে থাকি , কিন্তু আপনাদের কি কখনও এমনটা মনে হয়েছে , যে আপনি প্রয়োজনের তুলনায় অনেকটাই বেশি সময় ইউটিউবে ভিডিও দেখার জন্যই ব্যয় করে থাকেন ? বা ইউটিউবে ভিডিও দেখার জন্য আপনি আপনার রোজকার কাজের ক্ষতি করে ফেলছেন ? বা বন্ধুবান্ধবদের সাথে সময় কাটানোর চেয়েও ইউটিউবে ভিডিও দেখতেই আপনি বেশি পছন্দ করেন ? যদি এই প্রশ্নগুলির উত্তর হ্যাঁ হয়ে থাকে, তাহলে বন্ধুরা এখন থেকেই সাবধান হয়ে যান । কারণ হয়তো আপনি youtube addiction-এর শিকার হয়ে গেছেন । হ্যাঁ বন্ধুরা কথাটা শুনতে অদ্ভুত লাগলেও আমেরিকান সোসাইটি অফ মেন্টাল হেলথ-এর মতে বর্তমান বহু যুবক-যুবতিই YouTube addiction-এর শিকার হয়ে যাচ্ছেন । আর একটি বিশেষ পর্যায়ের পর এই addiction একটি মেন্টাল ডিসঅর্ডারের রূপ নিয়ে নিচ্ছে । কিন্তু এখন প্রশ্ন হল এটাই যে আপনি ঠিক কিভাবে বুঝবেন যে আপনি YouTube addicted হয়ে উঠেছেন কিনা ? আসুন একটু চেষ্টা করি । 

YouTube Addiction বোঝার উপায়

1. আপনি যখন ইউটিউবে ভিডিও দেখতে বসবেন, তখন আপনার আর কোনও কাজ, করতে ইচ্ছা করবেনা, এক্ষেত্রে আপনি শুধু ঘন্টার পর ঘন্টা ইউটিউবে ভিডিও দেখে যেতেই পছন্দ করবেন ।

2. আপনি বন্ধুবান্ধবদের সাথে সময় কাটানোর তুলিনায় ইউটিউবে ভিডিও দেখাই শ্রেয় মনে করবেন ।

3. ইউটিউবে নতুন কি ভিডিও দেখা যায়, বা কখন আপনি ইউটিউবে ভিডিও দেখতে বসবেন, আপনার মাথায় শুধু এটাই ঘুরপাক খেতে থাকবে ।

4. ইউটিউবে ভিডিও দেখার জন্য আপনি প্রচন্ড গুরুত্বপূর্ন কাজগুলিকেও অনায়াসেই এড়িয়ে যেতে শুরু করবেন ।

যদি আপনার সাথেও এই ঘটনাগুলি ঘটে থাকে, তাহলে আপনি বুঝে নিন যে আপনিও youtube addiction-এর শিকার হয়েছেন । এখন আমরা একটু জেনে নেওয়ার চেষ্টা করবো যে এই addiction থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপনি ঠিক কি কি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারেন ।

1. নিজেকে লিমিট করতে শিখুন, অর্থ্যাৎ ইউটিউবে আপনি কতক্ষন ভিডিও দেখবেন তা আগে থেকেই  মনস্থির করে নিন । নির্ধারিত সময়ের বেশি কোনোভাবেই ইউটিউবে ভিডিও দেখার চেষ্টা করবেন না । প্রথম প্রথম অসুবিধা হলেও একসময় ঠিক মানিয়ে নিতে পারবেন ।

2. নিজেকে ব্যস্ত রাখতে শিখুন, অর্থ্যাৎ সবথেকে আগে নিজের প্রয়োজনীয় কাজগুলি সম্পূর্ণ করে নিন। যদি আমি সব কাজ সম্পূর্ণ করে উঠতে পারি, তাহলেই আমি আজকে ইউটিউবে ভিডিও দেখতে বসবো । নিজের মনের মধ্যে এই চ্যালেঞ্জটা নিয়ে আসুন ।

3. নিজের বন্ধুদের গুরুত্ব দিন, তাদের সাথে সময় কাটাতে শিখুন, দেখবেন একসময় আপনার এই অভ্যাস এমনিতেই কমে যাবে ।

4. ইউটিউবে ফালতু ভিডিও দেখে সময় নষ্ট করার থেকে অনলাইনে বিভিন্ন কোর্স করার চেষ্টা করুন। তাহলে আপনার এই অভ্যাসটিকে আপনি কিছুটা পজিটিভ রূপ দিতে সক্ষম হবেন । অর্থ্যাৎ আপনার অভ্যাসটিও বজায় থাকল, আবার নতুন কিছু শিকতেও পারলেন । 

বন্ধুরা সবশেষে আমরা আপনাদের এটাই বলতে পারি, ইউটিউবে ভিডিও দেখা কিন্তু খারাপ জিনিষ নয় । কিন্তু যদি সেটা লিমিটের বাইরে চলে যায়, তাহলে তা সমস্যার বিষয় হয়ে দাঁড়াতে পারে । একসময় আপনার এই অভ্যাস একটি মানসিক রোগের রূপ নিয়ে নিতে পারে, এবং তখন আপনি আপনার জীবনের সমস্ত ক্ষেত্রেই শুধু পিছিয়ে পড়তেই থাকবেন । তাই জীবনটা যখন আপনার তখন আপনার জীবনকে সুন্দর করে তোলার দায়িত্বও আপনাকেই বহন করতে হবে ।

Health And Wellness Blogger

Click to comment

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

More in মানসিক স্বাস্থ্য

Trending

ডায়েট

To Top

You cannot copy content of this page

আপনার বাচ্চার সুস্থতার জন্য এই কয়েকটি কথা মেনে চলুন ? রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে এই খাবার গুলো রাখুন প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায়